এই সে মুসলিম বলিউড অভিনেতা,যিনি মৃত্যুর আগেও করনায় ভাইরাসে বিপদগ্রস্ত মানুষগুলোকে অতি গোপন দান করেছেন।

0
129

রিপোর্টার: আহমাদ স্বাধীন।
বলছি আমাদের সবার প্রিয় ইরফান খানের কথা,আজ ১ মাস ৫ দিন হলো,আমাদের এই সবুজ-শ্যামল সুন্দর পৃথিবীতে নেই ইরফান খান। কিন্তু বাংলাদেশ সহ পুরো বিশ্বের কোটি ভক্ত অনুরাগীদের হৃদয়ের মাঝে ৫৩ বছর বয়সী এই ইরফান খানের ছবি বছরের পর বছর চিরস্থায়ী হয়ে থাকবে,জনপ্রিয় এই মানুষটির মৃত্যুর এক মাস ৫ দিন পর জানা গেল তার হ্নদয়ের মধ্যে মানুষের জন্য কত গভীর ভালোবাসা ছিল, এই ইরফান খান মৃত্যুর আগে গোপনে করোনা‌ ভাইরাসে মানুষ কে সাহায্য করার জন্য তহবিল সংগ্রহ করছিলেন ।
রাজস্থানের জয়পুরে তার এক প্রতিবেশী জানান,যে ইরফান খান ভীষণ অসুস্থতা নিয়েও এই প্রাণঘাতী করোনা মহামারির জন্য তহবিল সংগ্রহ করছিলেন। ফিল্মফেয়ারের প্রতিবেদন অনুযায়ী ইরফান খানের প্রতিবেশী জিয়াউল্লাহ্ জানান,করোনার এই মহামারীর সময়ে আমরা তহবিল জোগাড় করছিলাম। তখন আমরা ইরফান খানের ভাইয়ের সাথে যোগাযোগ করি। তখন ইরফান খান আমাদের এই উদ্যোগের কথা জানতে পারেন। তিনি ভীষণ অসুস্থ্য থাকা অবস্থায় ও সর্বাত্মকভাবে আমাদের সহায়তা করেন। তবে অবাক করার বিষয় হল ইরফান খান আমাদের একটাই শর্ত দিয়েছিলেন,কোন ভাবেই যেন কেউ তাঁর এই দানের কথা জানতে না পারে।
ইরফান খান আমাদের বলেছিলেন,এমনভাবে দান করবে,যাতে করে‌ ডান হাত না জানে’ বাঁ হাত কী দিয়েছো’ এভাবেই আমাদের এই প্রিয় মানুষটি মানুষকে সাহায্য করে শান্তি পেতেন।

ইরফান খানের এই প্রতিবেশী আরও জানান,ইরফান ভীষণ মা–ভক্ত ছিলেন। মমতাময়ী মায়ের অসুস্থতার কথা শুনলেই তিনি ছুটে চলে আসেন। কিন্তু শেষবার যখন তাঁর মা অসুস্থ হয়েছিলো লকডাউন এবং নিজের শারীরিক অসুস্থতার কারণে ইরফান আসতে পারেননি। তার প্রতিবেশী আরও জানান, তিনি এত দিন ইরফানের দেওয়া ওয়াদা রাখার জন্য এই কথা গুলো গোপন রেখেছিলেন। কিন্তু তাঁর মন বলছে মানুষে ইরফান খানের এই মহা মানবিকতার কাজটি জানা উচিত। যে এই পৃথিবীতে ইরফান খানের মতো প্রসস্ত হ্নদয়ের মানুষও ছিলেন,যিনি কিনা মৃত্যুর আগেও মানুষের কথা ভেবে কাজ করেছেন।

এই দিকে ইরফান খানের মৃত্যুর পর তাঁর স্ত্রী সুতাপা সিকদার লম্বা চিঠি লেখেন। তার প্রিয় মানূষটির একটা ছবি পোস্ট করে পারস্যের কবি আল্লামা জালালউদ্দিন রুমির লিখা নকল করে ক্যাপশনে লিখেন, ‘সমস্ত ভালো আর মন্দের ওপারে যে সবুজ মাঠ, সেখানে আমাদের আবার দেখা হবে। মাঝখানে কেবল কিছু সময় দেয়াল হয়ে দাঁড়িয়েছে।