ইউরোপীয় ইউনিয়ন কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড হত্যার দ্বারা চরমভাবে ‘হতবাক!!

0
128

রিপোর্টার:আহমাদ স্বাধীন।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই অশান্তি শেষ করার প্রতিশ্রুতি দেওয়ায় ব্লকের শীর্ষ কূটনীতিক আরও বেশি মাত্রায় বল প্রয়োগের বিরুদ্ধে সতর্ক করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটার মিনিয়াপলিসে পুলিশ হেফাজতে গত সপ্তাহে নির্মমভাবে মারা যাওয়া নিরস্ত্র কৃষ্ণাঙ্গ‌ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রতিবাদে বিক্ষোভে উত্তাল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। এদিকে বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ দেশব্যাপী মার্কিন পুলিশ বর্বর হয়ে উঠেছে।

জর্জ ফ্লয়েডের পরিবারের প্রতিনিধিত্বকারী আইনজীবীরা বলেছিলেন যে ফ্লয়েডের ময়না তদন্তকারী স্বতন্ত্র মেডিকেল পরীক্ষা করে স্পষ্ট হয়েছেন যে প্রচন্ড বল প্রয়োগের চাপ থেকে নিঃসরণ মৃত্যুর মূল কারণ।

এই দিকে বিক্ষোভকারীরা জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর জন্য জড়িত চার পুলিশ কর্মকর্তাকেই দোষী করার দাবি করছেন। এখন পর্যন্ত কেবল একজন-সাদা চামড়ার অধিকারি ডেরেক চৌভিন, যিনি জর্জ ফ্লয়েডের অনুরোধের পরও প্রায় নয় মিনিটের মত এই পুলিশ অফিসার কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের ঘাড়ে হাঁটু গেড়েছিলেন,জর্জ ফ্লয়েড ডেরেক কে বলেছিলেন “আমি নিশ্বাস নিতে পারছি না, তার পরেও এই খুনি পুলিশ অফিসার তার ঘাড়ে হাঁটু চাপা দিয়ে রেখেছিলেন এতেই মৃত্যু ঘটে জর্জ ফ্লয়েডের,শুক্রবার ফ্লয়েডের ঘাতক পুলিশ অফিসার কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে তৃতীয়-ডিগ্রি হত্যা এবং হত্যাযজ্ঞের অভিযোগ আনা হয়েছে।

পুলিশের এই বর্বর আচরণের বিরুদ্ধে যারা প্রতিবাদ করছে তাদের অনেক সময় কর্তৃপক্ষের দ্বারা অতিরিক্ত বাহিনীর সাথে দেখা করতে হয়েছিল,এবং জর্জিয়ার আটলান্টায় দুই কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিকে একটি গাড়ি থেকে টেনে নামিয়ে মাটিতে ফেলে দেওয়ার জন্য সপ্তাহান্তে দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছিল। ভিডিওতে দেখা গিয়েছে যে, পুলিশ ক্ষুব্ধ ও শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকারীকে টিয়ার গ্যাস এবং রাবার বুলেট দিয়ে লক্ষ্যবস্তু করেছে। সাংবাদিকদের ক্যামেরা ও পুলিশকে টার্গেট করেছে।

কিছু শহরগুলিতে কারফিউ এবং ইউএস ন্যাশনাল গার্ডের উপস্থিতি দেখে বিক্ষোভকারীরা অপ্রচলিত রয়েছেন। রাত জেগে ওঠার সাথে সাথে লুটপাট ও ভাঙচুরের সাথে কিছুটা শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ সহিংস হয়ে ওঠে। (সূত্র আলজাজীরা নিউজ)